জোকি - সুলতান সালাহুদ্দীন আইয়ুবী

লিখেছেন লিখেছেন Mujahid Billah ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ০২:৫৬:৩৬ দুপুর

জোকি আজ সেজেছে অপরূপ সাজে। আকাশ থেকে যেন মর্তে নেমে এসেছে কোন রূপের পরী। কড়া সুগন্ধি দিয়ে স্নাত হয়েছে মেয়েটি। সূক্ষ্ম কারুকার্যের ধবধবে সাদা কাশফুলের মত কোমল এক প্রস্থ কাপড়ে সেজেছে জোকি। সোনালী চুলগুলো ছেড়ে দিয়েছে উন্মুক্ত কাঁধে। শ্বেতশুভ্র কাঁধের চুলগুলো এলোমেলো হয়ে জোকিকে করে তুলেছে স্বপ্নকন্যা। পটলচেরা হরিনী চোখে কাঁজল মেখে যেন হয়ে উঠেছে রহস্যময়ী। কণ্ঠে রয়েছে যাদুর বাঁশি। নৃত্যে রয়েছে হৃদয় ছিনিয়ে নেয়ার তাল। মাতাল করা তার সুরলহরী। হালকা কাপড় ভেদ করে ঠিকড়ে বেরোচ্ছে জোকির বিস্ফোরন্মুখ রূপ-লাবণ্য। রঙিন ঠোঁটে স্মিত হাসিতে যেন ঝরে পড়ছে গোলাপের পাপড়ি।

পরনে নাচের ঝলমলে পোষাক। আধখোলা দেহ। উন্মুক্ত কাঁধের উপর সোনার তারের মতো রেশমি চুল।

রাতের মৃদুমন্দ বাতাসে উড়ছে তরুণীদের গায়ের কাপড়। চোখ-মুখ ঢেকে দিচ্ছে চুল। সবার পোষাকের রঙ ভিন্ন; কিন্তু শরীরের গড়ন এক। সবাই ঊর্বশী তরুণী। বোকের মতো ডানা মেলে যেন একগুচ্ছ ফুটন্ত গোলাপ উড়ে আসছে। দেখা যাচ্ছে না তাদের পায়ের ষ্পন্দন। এগিয়ে আসছে নৃত্যের ছন্দে দুলে-দুলে, যেন বাতাসে ভর করে। আইউবির দিকে দুহাত প্রসারিত করে একই সঙ্গে মাথা ঝোঁকাল সবাই। ওদের খোলা চুলগুলো এলিয়ে পড়ল কাঁধে। যেন কতগুলো তারা খসে পড়ছে আসমান থেকে।

সঙ্গীতদলের বাজনা তুঙ্গে উটল। বেজে উঠল আরো জোরে। ডালা থেকে ধীরে-ধীরে উত্থিত হলো একটা কলি। দেখতে-দেখতে সবগুলো পাপড়ি মেলে ফুটন্ত গোলাপের মধ্য থেকে বেরিয়ে এল একটা অপ্সরী। মনে হচ্ছিল লাল মেঘের আবরণে বেরিয়ে আসছে দ্বাদশীর চাঁদ। এক অনিন্দ্যসুন্দরী তরুণী। ঠোঁটে মুক্তাঝরা হাসির ঝিলিক। এ যেন মাটির মানুষ নয়, যেন হিরে-পান্নার তৈরী ভিন গ্রহের এক মায়াবিনী

____

বইটি পড়ে জোকি'র রূপে যতটুকু মুগ্ধ হয়েছি, তার থেকে হাজারেরও বেশি মুগ্ধ হয়েছি সুলতান সালাহুদ্দীন আইউবি'র সাহসী বীরত্ব আর ঈমানী উদ্দীপনায়!!

চাইলে আপনিও পড়তে পারেন !!

বিষয়: সাহিত্য

১১০১ বার পঠিত, ০ টি মন্তব্য


 

পাঠকের মন্তব্য:

মন্তব্য করতে লগইন করুন




Upload Image

Upload File