ক্ষমা করো মীর কাশিম.......

লিখেছেন লিখেছেন সত্য নির্বাক কেন ০৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০৪:৩৭ দুপুর



আমরা এটা বুঝি যে দেশের অবৈধ সরকার তার ক্ষমতা ঠিকিয়ে রাখার জন্য যা তাদের সাহসে কোলায় তার সবই তারা করছে । চোর ডাকাত লুণ্ঠন কারীদের নৈতিকতার প্রশ্নই আসে না । আর তারাই যদি থাকে ক্ষমতার কেন্দ্রবিন্দুতে তা হলে আইন বিচার সংসদ এইগুলো জাস্ট তাদের সুরক্ষার কাজেই ব্যবহৃত হতে বাধ্য ।

তারাতো এই ম্যাসেজই দিবে উদ্যোগতা হইয়োনা মীর কাশেমের মত ঝুলিয়ে দেওয়া হবে । সৎ ও যোগ্য নেতা, মন্ত্রী হইয়োনা নিজামী মোজাহিদের মত ঝুলিয়ে দেওয়া হবে । সুন্দর চিন্তার দেশের জন্য কল্যাণকামী দেশ প্রেমিক বুদ্ধিজীবী হইয়োনা কাদের মোল্লা , কামারুজ্জামানের মত ঝুলিয়ে দেওয়া হবে !!

কিন্তু ইতিহাস সাক্ষী এইরকম লুণ্ঠনকারী , ক্ষমতা দখলকারী ফেরাউরাই অবশেষে ঝুলে যায় নীল নদে ডুবে মরে এবং ঘৃণার আবর্তে যুগে যুগে পদ দলিত হয়।।

জালিমের ফাঁসির দড়িতে জনাব মীর কাসেমরা মরে নি মরেনি, মরেছে বাংলাদেশ.....

জনাব কাদের মোল্লাদের তো পোস্টমর্টেম করে কফিনে ঢুকিয়ে ফেলা হয়েছে, কিন্তু এই সমাজের পোস্টমর্টেম করবে কে??

বিচার হয়নি......হয়েছে ইতিহাস.....

কিন্তু এভাবে আর কত?

আর কত নিজামী কিংবা মোজাহিদরা ইতিহাস হবে?

ফেভিকলের আঠাযুক্ত নরম গদির মানুষেরা মানবতাবাদী, প্রগতিশীল, সভ্য মানুষ। তাই তারা এসব আধুনিক সমাজের কৃতিত্ব বলে চালিয়ে দেয়।

সুশীলেরাও আজ চুপ। চেতনাধারী অচেতনরা আজ অন্ধ। মানবতাবাদী মুক্তমনারা আজ বোবা।

সমাজ ধংস হোক। নারী লাঞ্চিত হোক। ধর্ষিত হোক। গায়ে আগুন ঢেলে মরুক। দর্জির ছুরির আঘাতে মরুক।

তাতে তথাকথিত সুশীল চেতনাধারী মানবতাবাদীদের যেন কিছুই যায় আসে না!

আর আমরাও ফেসবুকের প্রোফাইলে ২ দিন কালো ছবি ঝুলাই কিংবা 'Justice for অমুক, তমুক' লিখে পোস্ট করি.....ব্যাস, তারপর সব ভুলে যাই!

এভাবে আর কত!!????

জনাব নিজামীরা তো মরে গিয়ে বাঁচলো, আমরা বেঁচে আছি কেন? মানুষ বেঁচে আছে কেন?

এভাবে বেঁচে থাকাকে কি বেঁচে থাকা বলে?

মানুষ কি এভাবে বেঁচে থাকে?

একের পর এক আমাদেরই নাকের ডগার ওপর দিয়ে এভাবে হারিয়ে যাচ্ছে শত শত হুম্মাম,আরমান কিংবা আযমীরা...

আমরা মরি না কেন?

আমাদেরও মরে যাওয়াই উচিত!

এসব প্রতিরোধ/প্রতিকার করতে না পারলে আমাদের মরে যাওয়াই উচিত!

বেঁচে থাকার অন্তত কোনো অধিকার আমাদের নেই।

প্রতিটা দিন, প্রতিটা ক্ষেত্রে হতাশার সংবাদ! আমরা শুধু পিছিয়ে যাচ্ছি৷ ন্যয়বিচার এখন স্বাভাবিক শব্দটির থেকেও বেশি অস্বাভাবিক হয়ে গেছে৷ অন্যায়ের প্রতিবাদ না করা একটা মেরুদন্ডহীন জাতিতে আমরা দিন দিন অভূতপূর্ব সাফল্য দেখাচ্ছি!!

ক্ষমা করো মীর কাশিম।

এই শ্বাপদসঙ্কুল আওয়ামী জনপদে একজন খুনির হাত থেকেও আমরা আপনাদেরকে নিরাপদে রাখতে পারি নাই ।

আপনাদের রেখে যাওয়া সংগঠন,প্রতিষ্ঠান গুলো হয়ত ক্যান্সারে আক্রান্ত এই মৃত রাষ্ট্রের প্রতিষেধক হিসেবে ভূমিকা রাকবে ইনশাআল্লাহ ......

মহান রব আমাদের সহায় হোক..........

৪৪ বছর আগের হত্যা, ধর্ষণ, মানবতা বিরোধী অপরাধের দায়ে যাদের ফাঁসির কাষ্ঠে ঝোলানো হচ্ছে, আমরা নতুন প্রজন্ম তাদেরকে একদিনের জন্যও এমন কোন অপরাধের সাথে সম্পৃক্ত হতে দেখলাম না। আর যারা ৪৩ বছর পরে হঠাৎ করেই এই অভিযোগগুলো করছে, তাদের নেতা- কর্মীদেরকেই দেখেছি ধর্ষণে সেঞ্চুরি করতে। ব্যাংক ডাকাতি করতে, লুটপাট করতে, অস্ত্রবাজি- বোমা বাজি করতে, ক্ষমতার দম্ভে নির্দ্বিধায় হত্যা করতে, মানুষের লাশ টুকরা টুকরা করতে, লাশের উপর নৃত্য করতে আমরা নতুন প্রজন্ম কি বিশ্বাস করব? যা নিজ চোখে দেখছি সেটা? নাকি যা গল্পের মত..?

৪৫ বছর আগে কি ঘটনা ঘটছে তখন আপনে দেখেন নাই বিশাস করে বসে আছেন আর এখন আপনার চোখের সামনে ছাএলীগ যুবলীগ পুলিশলীগ এই তিন লীগ মিলে দেশের যে পরিস্থিতি করছে তা ৭১ সালকে হার মানিয়েছে। ৭১সালে আগে আপনার আমার একটা নিরাপত্তা ছিল, তখন দেশে বিচার ছিল, তখন ঘুম হয়ে যাবার ভয় ছিলনা এখন এই তিন বাহিনী যদি আপনাকে মেরে ফেলে বলবে আপনি জঙ্গি ছিলেন........

অাসল কথা হল হাছিনা ভারতের প্ররোচনায় জীবনের শেষ খেলা খেলতে চায়!! হয় দেশটা সিরিয়া হবে না হয় সিকিম তথা ইন্ডিয়ার গোলাম!! নামে বাংলাদেশ ৷ যেকোন উপায়ে ক্ষমতায় থাকতেই হবে , তার বুদ্ধি কমনা।আমাদের দুর্বলতার সুযোগে যদি তার বিরোধীদের গুম খুন করে নিধন করা না যায়, জীবনে অার তো সে সুযোগ পাবেনা ৷ তাই বিরোধীদের নিধন করে ভারতীয়দের অাশির্বাদে ক্ষমতায় থাকতে পারে কিনা তার আপ্রাণ চেষ্টা চলতেছে ৷

বিষয়: বিবিধ

২২৩৪ বার পঠিত, ২ টি মন্তব্য


 

পাঠকের মন্তব্য:

377174
০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৬ দুপুর ১২:৫৩
কাহাফ লিখেছেন :
স্বার্থবাদী চেতনা নয়, সত্যিকারের দ্বীনী চেতনাময় হোক সকলের অন্তর-এই কামনা মহান রবের দরবারে!
০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৬ বিকাল ০৪:০৪
312662
সত্য নির্বাক কেন লিখেছেন : আমীন

মন্তব্য করতে লগইন করুন




Upload Image

Upload File