বুড়া মিয়া এর ব্লগ

ইসলামিক ক্রয়-বিক্রয় ও আমার দৃষ্টিভঙ্গী – ৩

লিখেছেন বুড়া মিয়া ২৪ অক্টোবর, ২০১৪, ০২:৫০:০০ দুপুর

এসব ব্যবসার নামে ব্যবসায়ীরা যে দালালীটা করে, তা তো দালালী হিসেবে ইসলামী দৃষ্টিতে পরিত্যাজ্যই; এমনকি হিসাবেও এটা অসাড় সবার কাছেই অনেকটা এরকমভাবেঃ
১ কেজি খেজুর = ১ কেজি খেজুর
১ দিনার = ১ দিনার
এখানে ক্রেতা বিক্রেতা দুইজনেরই পরিশ্রম লাগবে খেজুর বা দিনার উৎপাদন করতে, তাই হিসাব সবদিক থেকেই সমান হওয়াটাই যুক্তিসঙ্গত। যে কেউ সমগোত্রীয় জিনিস বিনিময় করতে যাবে, সমপরিমাণই পাবে বা আশা...

বাকিটুকু পড়ুন | |

ইসলামিক ক্রয়-বিক্রয় ও আমার দৃষ্টিভঙ্গী – ২

লিখেছেন বুড়া মিয়া ২৪ অক্টোবর, ২০১৪, ১১:১৩:৪৩ সকাল

এর আগের পোষ্টে আলোচনা করেছিলাম আমার জানা একটা হাদীসের কিছু অংশের আলোকে খেজুর বেচা-কেনার লাভ সম্বন্ধে, এবার তার চাইতে আরেকটু গভীরে যাওয়ার চেষ্টা করবো স্বল্পজ্ঞানেই, দুইটা বাক্য সামনে রেখে, তা হচ্ছে –
‘ব্যবসাতো সুদের মতোই’ এবং ‘ব্যবসা হালাল আর সুদ হারাম’
এবার লাভের ব্যবসা এবং সুদের কারবার, এই দুইটার প্রকৃতি নিয়ে চিন্তাভাবনা করতে হবে এই কারণে যে, কেনো এমন প্রশ্ন উঠতে পারে।
লাভের...

বাকিটুকু পড়ুন | |

ইসলামিক ক্রয়-বিক্রয় ও আমার দৃষ্টিভঙ্গী – ১

লিখেছেন বুড়া মিয়া ২৪ অক্টোবর, ২০১৪, ০৯:১১:৫৭ সকাল

রাসূল (সা.) এর হয়তো অনেক বর্ণনা রয়েছে ক্রয় বিক্রয় (ব্যবসা) নিয়ে, তার খুব সামান্যই আমি পড়েছি; এ সামান্যের মধ্যে একটা ক্রয়-বিক্রয়ের উদাহরণ দিয়ে বোঝার চেষ্টা করবো, লাভ বলতে কিছু ছিলো কি-না সেসব ট্রেডে।
আমার কাছে ১ কেজি খেজুর আছে আমি তা বাজারে নিয়ে বিক্রি করলে ১ কেজি খেজুরই বিনিময় হিসেবে পাবো আমি, হাদীসে মনে হয় এভাবেই বলা আছে। তৎকালীন অনেক ক্রয় বিক্রয় খেজুর দিয়েই হতো অর্থাৎ, খেজুরই...

বাকিটুকু পড়ুন | |

ইসলাম-ধর্ম ব্যবসায়িক লাভ সম্পর্কে কি বলে?

লিখেছেন বুড়া মিয়া ২৩ অক্টোবর, ২০১৪, ০৪:৪৪:৫৪ বিকাল

অনেক কিছু লিখেছি এতোদিন ভরে অর্থনৈতিক বিষয়ে আমার নিজের জানা থেকে এবং সেখানে ঘটনাক্রমে ব্যবসায়িক লাভ এবং তার উৎপত্তি নিয়েও যথেষ্ট আলোচনা করা হয়েছে তাত্ত্বিক এবং যৌক্তিক উপায়ে; সেসবের মধ্য থেকে ধর্মীয় বিষয় স্বাভাবিকভাবেই দূরে রাখার চেষ্টা করেছি ধর্মের অনেক ক্ষেত্রে আমার অজ্ঞতার কারণেই।
হিসাব-নিকাশ, লাভ ইত্যাদী যেহেতু আমার জীবনের দীর্ঘসময়ের শিক্ষার বিষয় ছিলো, তাই এ সম্বন্ধে...

বাকিটুকু পড়ুন | |

সিঁধেল চোর

লিখেছেন বুড়া মিয়া ২১ অক্টোবর, ২০১৪, ০৩:৩৮:৪৯ রাত

একসময়ের আমাদের দেশের একদল পরিশ্রমী কর্মঠ মানুষ, যারা হাই রিস্ক নিয়ে গায়ে তৈল লাগিয়ে, লুঙ্গি কাছা দিয়ে রাতের আধারে শাবল নিয়ে পরের ঘরের ভিটা কেটে অর্থ সম্পদ হাতিয়ে নিয়ে গেইন করতোঃ তাদেরকে সবাই চিনতো সিঁধেল চোর নামে! এটা সেই যুগের চিত্র যখন মানুষ নিজের ঘরে জমা করে রাখতো শস্য এবং অর্থ সম্পদ, কিছু বাশের ডোলে আর কিছু মাটি-পিতল-কাশার কলসী বা পাত্রে, কিছু মাটির তলেও। এই সিঁধেল চোররা...

বাকিটুকু পড়ুন | |

পারিবারিক শিক্ষা কেউ-ই কাজে লাগাতে পারে না জীবনে ...

লিখেছেন বুড়া মিয়া ২০ অক্টোবর, ২০১৪, ০১:১২:৩৬ রাত

ইদানীং আরও কিছু ব্যাপার ভেবে দেখলাম যে, সমষ্টিক ব্যাপারে সবসময়ই সমতার ভিত্তিতে বন্টন হওয়া উচিৎ এবং সেটাই যুক্তিসঙ্গত; পৃথিবীর সব মত এবং ধর্মের মানুষও এ সমতা একটা জায়গায় মেনে নেয়, আরেকটা জায়গায় মানতে টালবাহানা করে! যে জায়গায় মেনে নেয়, সেটা হয়তো মানতেই থাকবে আর না মানার জায়গায় হয়তো টালবাহানা চলতেই থাকবে।
বর্তমান পৃথিবীর সব মানুষেরই ব্যবস্থাপনার প্রথম পাঠশালা এবং কর্মক্ষেত্র...

বাকিটুকু পড়ুন | |

কষ্ট-বেনিফিট বা লাভ-ক্ষতি সবসময় সমান সমান

লিখেছেন বুড়া মিয়া ১৮ অক্টোবর, ২০১৪, ০৯:১৬:২১ সকাল

এর আগের একটা পোষ্টে ‘সময়-শ্রম’ ক্রয় বিক্রয়ের কথা আলোচনা করেছিলাম এবং ইসলামের আলোকে কিছু উত্তর আশা করেছিলাম, কিছু পেয়েছি এবং কিছু পাই নাই। যেকোন জিনিসের মূল্যের ব্যাপারে লক্ষ্য করলে দুইটা ব্যাপার পাওয়া যায়; ১) বস্তুগত দিক, ২) সে বস্তুতে নিয়োজিত শ্রম।
বস্তুগত ব্যাপারগুলো মানুষের সাধ্যের বাইরে এবং এতে কখোনোই কোন মানুষের পরিবর্তন করার সাধ্য নাই, সেগুলো সৃষ্টিকর্তার প্রকৃতিগত...

বাকিটুকু পড়ুন | |

ক্যাপিটালিষ্ট ছলিমরা আমাদের কোথায় নিয়ে যাচ্ছে?

লিখেছেন বুড়া মিয়া ১৭ অক্টোবর, ২০১৪, ০৬:২৫:৪৪ সন্ধ্যা

এর আগের পোষ্টে ছলিমদের পাশাপাশি আমাদের মতো সাধারণদেরও ক্যাপিটালিষ্টিক চরিত্রের ব্যাপারে বলেছিলাম! আমাদের এই চরিত্রের দিকে চোখ দিলে আরও কিছু আজব ব্যাপার পরিলক্ষিত হয়, যা পাশ্চাত্যের সমষ্টিক চরিত্রের সাথে কোনভাবেই মিলে না! আমরা সাধারণরা ব্যক্তিগতভাবে ক্যাপিটালিষ্ট হলেও, ছলিম কলিমদের ব্যবসাক্ষেত্র ছাড়া আর কোথাও লাভ করার জায়গা আমাদের নেই! আর ইনোভেটিভ কিছুর উদ্যোগ কারও...

বাকিটুকু পড়ুন | |

ক্রয় বিক্রয় এবং ওজন নিয়ে কিছু কথা

লিখেছেন বুড়া মিয়া ১৬ অক্টোবর, ২০১৪, ০৭:২৪:৫৫ সন্ধ্যা

এর আগের দুইটা পোষ্টে লাভ এবং প্রাইস নিয়ে কিছু আলোচনা করেছিলাম। সেখানে আউটসোর্সিং এর জন্য প্রাইসিং এর পলিসি কি সেটাও বলেছিলাম। প্রত্যেকটা সাধারণ মানুষও আসলে এভাবেই প্রাইসিং এর ডিসিশন নেয়। যেমনঃ আমি যখন কোন কিছু কিনতে যাই (এটাই আউটসোর্সিং), তখন দুইটা জিনিস চিন্তা করি – কষ্ট (নিজে বানালে বা করলে কি হয়) এবং বেনিফিট (আরেকজনকে দিয়ে কষ্টের কাজটা করিয়ে, সেই সময় আমি অন্য কিছু করলে কি...

বাকিটুকু পড়ুন | |

অর্থনৈতিক প্রতিযোগিতা - ১৩

লিখেছেন বুড়া মিয়া ১৫ অক্টোবর, ২০১৪, ০৭:০৬:২৩ সন্ধ্যা

পূজিবাদীদের চরিত্র নিয়ে এর ঠিক আগের এই পোষ্টে কার্ল মার্ক্সের একটা অংকের আলোকে হিসাব করেছিলামঃ কিভাবে লাভ করা হয় মানে, কিভাবে কিছুই (লাভ) নাই এর মধ্যে থেকে কিছু (লাভ) বের করা হয়! এটা বোঝার জন্য আধুনিক ফিন্যান্স, ইকোনোমিক্স এর কিছু প্রাথমিক তত্ত্ব জরুরী শুরুতেই ব্যাখ্যা করা (যদিও এটা সবাই অন্যভাবে বুঝে থাকে, এইসব নাম ছাড়াই)।
অপর্চুনিটি কষ্ট অফ ইনভেষ্টমেন্টঃ এটা হচ্ছে এমন একটা...

বাকিটুকু পড়ুন | |

অর্থনৈতিক প্রতিযোগিতা - ১২

লিখেছেন বুড়া মিয়া ১৫ অক্টোবর, ২০১৪, ০৭:৫৯:১৭ সকাল

পূজিবাদী বা ক্যাপিটালিষ্টদের চরিত্র এবং অন্যান্য অনেক বিষয় নিয়ে কার্ল মার্ক্স এর Das Kapital যুগান্তকারী এক লেখা। কিভাবে পূজিবাদীরা লাভ করে, তা নিয়ে উনি অনেক সুন্দর ব্যাখ্যা এবং কিছু অঙ্কও করে দেখিয়েছেন। তার করা একটা অঙ্ক নিয়ে একটু অন্যভাবে দেখবো যে, কিভাবে সারপ্লাস বা লাভ আসে পূজিবাদীদের। উনার লেখায় কটন-স্পিনিং এর ব্যাপারগুলো অনেকবার এসেছে যা আমাদের দেশের বর্তমানের টেক্সটাইল-গার্মেন্টস...

বাকিটুকু পড়ুন | |

অর্থনৈতিক প্রতিযোগিতা – ১১

লিখেছেন বুড়া মিয়া ১৪ অক্টোবর, ২০১৪, ০১:২৫:২৮ রাত

ব্যাংকিং-ব্যবস্থা সমাজে যে অবিচার করে, সেটা আসলে টিকিয়ে রেখেছে এই সমাজেরই অনেক মানুষ, যাদের সামর্থ্য ছিলো এ ব্যবস্থাপনাকে বদলে দেয়ার, কিন্তু তাদের বাজে ইচ্ছা বা লোভই মূলত এ ব্যবস্থাপনা টিকিয়ে রেখেছে, আর এর কুফল বাধ্য হয়ে অনেকেরই ভোগ করতে হচ্ছে; তবে আমি যেটা মনে করিঃ এটা পূর্ব-নির্ধারিত একটা বিষয়ই ছিলো যে ব্যাপারে আমরা ভবিষ্যদ্বানী জেনে এসেছিলাম এমন যে – প্রত্যেক মানুষকেই...

বাকিটুকু পড়ুন | |

জাতীয়-উন্নতির অন্তরায় আমাদের শিক্ষা-ব্যবস্থা

লিখেছেন বুড়া মিয়া ১১ অক্টোবর, ২০১৪, ১১:৪৫:২১ রাত

সমাজে অনেক ধ্বজাধারীদেরকে প্রায়ই শিক্ষা শিক্ষা বলে মুখে ফেপড়ী তুলে ফেলতে দেখা যায়, আর তার সাথে যদি নারীদের কোন মওকা তারা পায়, তবে তো কোন কথাই নেই, পারলে যেন রক্তই বিলিয়ে দেবে অকাতরে নারীদের শিক্ষার জন্য। আমার দেখা শিক্ষাব্যবস্থার কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা করে দেখবোঃ এ ব্যবস্থা কি শিক্ষা দেয় আমাদের? আদৌ কি এটা কোন শিক্ষা ব্যবস্থা, না-কি একটা নির্দিষ্ট রকমের মানুষ গড়ে তোলার জন্য...

বাকিটুকু পড়ুন | |

ইসলামী বউ-জামাই, শ্বশুর-শ্বাশুরী ও দায়িত্ববোধ

লিখেছেন বুড়া মিয়া ১০ অক্টোবর, ২০১৪, ০৮:২৪:৫৫ রাত

স্ত্রী বিষয়ক আলোচনায় আবার আসতে হচ্ছে, কিছু ব্যাপার আমার নিজের কাছে পরিস্কার হওয়ার জন্যই; কেননা, আমি মনে করি এ ব্লগে – অনেক ইসলামী জ্ঞানসম্পন্ন ভাই-বোনেরা রয়েছে এর যৌক্তিক উত্তর দানে। আমার এর আগের পোষ্টে অনেক ভাই-বোনের কথায় আমার মনে আরেকটা প্রশ্ন বদ্ধমূল হয়েছে, তা হচ্ছে স্ত্রীর কি কাজ স্বামীগৃহে? আর স্ত্রীর অধিকার কি তাও জানার আগ্রহবোধ হচ্ছেঃ
১/ বিয়ের পর কোন প্রয়োজন না পড়লেও,...

বাকিটুকু পড়ুন | |

বউ নিয়ে আমার ইসলামী দৃষ্টিভঙ্গী, আবু সাইফ ভাইয়ের অনুধাবন এবং জীবন এর কিছু কথা

লিখেছেন বুড়া মিয়া ০৯ অক্টোবর, ২০১৪, ১০:১০:৪৬ রাত

কুর’আনের তাফসীর পড়তে গিয়ে বেশ কিছু ইসলামিক জ্ঞান অর্জন হয়েছিলো আমার, তবে সেটাকে আমি যথেষ্ট মনে করি না একজন ভালো মুসলিম হিসেবে, তবে মনে করি অতোটুকুও যদি আমি বা যে কেউ মানতে পারে, তবে তা হয়ত একজন মুসলিম হিসেবে ধর্মীয়ভাবে সুন্দর জীবন যাপনের জন্য যথেষ্ট।
আমার অনেক লেখায়ই সরাসরি দেশের নারীদের-কে নিয়ে বিভিন্ন কথা আছে, যেখানে আমি তাদের ব্যঙ্গ করেছি এবং কিছু উপদেশও দিয়েছি; যদিও সেগুলো...

বাকিটুকু পড়ুন | |